ঢাকা | সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
অর্থনীতি

গত ৬ মাসে খেলাপি ঋণ বেড়েছে ১২ হাজার কোটি টাকা

বাংলাপেইজ ডেস্ক : প্রকাশিত হয়েছে: ১৮-০৮-২০১৭ ইং । ১১:৪৯:৫৫

দেশের ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণের লাগাম কোনোভাবেই টেনে ধরা যাচ্ছে না। ছয় মাসের ব্যবধানে এ খাতে খেলাপি ঋণ বেড়েছে ১১ হাজার ৯৭৬ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
গত বছরের ডিসেম্বর শেষে দেশের ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ছিল ৬২ হাজার ১৭২ কোটি টাকা, যা ছিল ওই সময়ে বিতরণকৃত ঋণের ৯ দশমিক ২৩ শতাংশ। তবে চলতি বছরের জুন শেষে খেলাপি ঋণের পরিমাণ বেড়ে ৭৪ হাজার ১৪৮ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণের ১০ দশমিক ১৩ শতাংশই এখন খেলাপির খাতায় চলে গেছে। এর বাইরে মন্দমানের খেলাপি হয়ে যাওয়ায় অবলোপন করা হয়েছে প্রায় ৪৫ হাজার কোটি টাকার ঋণ। সবমিলিয়ে দেশের ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১ লাখ ১৯ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। বড় অংকের এ খেলাপি ঋণ দিয়ে অন্তত চারটি পদ্মা সেতু বানানো সম্ভব বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।
বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ বলেন, সুশাসনের ঘাটতি সৃষ্টি হওয়ায় ব্যাংকগুলোয় অনিয়ম-দুর্নীতি বেড়ে যাচ্ছে। এতে নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়েছে খেলাপি ঋণ। বাংলাদেশ ব্যাংক নিজেদের ক্ষমতার পূর্ণ ব্যবহার করলে এমনটি হওয়ার কথা নয়। ব্যাংকের ওপর জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস নষ্ট হয়ে গেলে দেশের অর্থনীতিতে বড় ধরনের বিপর্যয় নেমে আসে। পরিস্থিতি উন্নয়নে নিয়ন্ত্রক সংস্থা হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে শক্ত হতে হবে।
তিন মাস পর পর দেশের ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণ ও খেলাপি ঋণ বিষয়ে প্রতিবেদন তৈরি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। রাষ্ট্রায়ত্ত, বেসরকারি ও বিদেশী খাতের ব্যাংকগুলো থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। চলতি বছরের জুনে খেলাপি ঋণের প্রতিবেদন গতকাল চূড়ান্ত অনুমোদন করা হয়। প্রতিবেদন অনুযায়ী, জুন পর্যন্ত দেশের ৫৭টি তফসিলি ব্যাংক ঋণ বিতরণ করেছে ৭ লাখ ৩১ হাজার ৬২৬ কোটি টাকা। এর মধ্যে খেলাপি হয়ে গেছে ৭৪ হাজার ১৪৮ কোটি টাকার ঋণ। খেলাপি হয়ে যাওয়া ঋণের ৮৫ শতাংশই মন্দমানের খেলাপিতে পরিণত হয়েছে।
দেশের ব্যাংকিং খাতের খেলাপি ঋণের প্রায় অর্ধেকই রাষ্ট্রায়ত্ত আটটি ব্যাংকের। জুন শেষে সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী, বেসিক ও বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (বিডিবিএল) খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৪ হাজার ৫৮১ কোটি টাকা। ডিসেম্বরে এ ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণের পরিমাণ ছিল ৩১ হাজার ২৫ কোটি টাকা।
রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওবায়েদ উল্লাহ্ আল্ মাসুদ বলেন, অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে বিতরণকৃত ঋণগুলো পুনঃতফসিলের পরও খেলাপি হয়ে যাচ্ছে। তবে আমরা খেলাপিদের আর ছাড় না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আশা করছি, খুব দ্রুতই সোনালী ব্যাংক ঘুরে দাঁড়াবে।
এর বাইরে বিশেষায়িত বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের খেলাপি ঋণ ৫ হাজার ৫১৮ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। জুন শেষে দেশের বেসরকারি খাতের ৪০টি ব্যাংকের খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩১ হাজার ৭২৯ কোটি টাকা। একই সময়ে বিদেশী নয়টি ব্যাংকের ২ হাজার ৩২১ কোটি টাকার ঋণ  খেলাপির খাতায় যুক্ত হয়েছে। : সূত্র : বণিক বার্তা
ডিআর/৮৪

শেয়ার করুন
সর্বশেষ খবর অর্থনীতি
  • রেলের উন্নয়নে ৩৬ কোটি ডলার দেবে এডিবি
  • ভয় দেখানোর কারণে কর দেওয়ার প্রবণতা কমে
  • পেঁয়াজে বাংলাদেশকে ছাড় দিলো ভারত
  • অবসরে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী
  • ফোরজি থেকে আয় হবে ৫৩০০ কোটি টাকা
  • বাংলাদেশ মাছ-মাংসে স্বয়ংসম্পূর্ণ
  • অর্থ চুরি করেছে উত্তর কোরিয়ার হ্যাকাররা
  • রিজার্ভ চুরির ঘটনায় আরসিবিসির বিরুদ্ধে মামলা করবে বাংলাদেশ ব্যাংক
  • রবার্ট জোয়েলিক একটা বাজে লোক ও অপদার্থ
  • স্বর্ণের দাম বৃদ্ধি পেল আবারও
  • ডলারের পর এখন টাকার টানাটানি
  • ব্যক্তিগত মুনাফার জন্য যেন প্রবৃদ্ধি ব্যাহত না হয় : রাষ্ট্রপতি
  • ২০১৭ সাল ব্যাংক কেলেঙ্কারির বছর হয়ে থাকবে: সিপিডি
  • সাজানো নাটকে এবি ব্যাংকের অর্থ পাচার
  • বিটকয়েন মুদ্রায় : লেনদেনে সতর্কতার পরামর্শ অর্থনীতিবিদদের
  • নতুন বছরের শুরুতেই ফোরজি সেবা: তারানা হালিম
  • সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার কথা বঙ্গবন্ধুর ভাষণেই আছে : প্রধানমন্ত্রী
  • সোনার দাম ফের বাড়লো
  • বালাসুরে ইউসিবির ১৭১তম শাখা
  • গোপালগঞ্জের বাজারে শীতের সবজি উঠলেও দাম চড়া
  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।