ঢাকা | রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
আন্তর্জাতিক

মুসলিম জনসংখ্যা যেভাবে বদলে দিতে পারে ইউরোপের চেহারা

বাংলাপেইজ ডেস্ক: প্রকাশিত হয়েছে: ০৩-১২-২০১৭ ইং । ০৬:৩৫:৪৩

বিভিন্ন ধর্মের মানুষের সংখ্যার অনুপাতে ২০৫০ সালে ইউরোপের চেহারাটা কেমন দাঁড়াবে? মার্কিন গবেষণা সংস্থা 'পিউ রিসার্চ সেন্টার' অভিবাসনের হার বিবেচনায় এর যে নানা চিত্র দাঁড় করিয়েছে, তাতে দেখানো হচ্ছে, মুসলিমরা জনসংখ্যার বিরাট বৃদ্ধি ঘটবে বিভিন্ন দেশে।
যেমন ধরা যাক সুইডেনের কথা। ২০১৬ সালে সুইডেনের মুসলিমদের সংখ্যা ছিল মোট জনসংখ্যার ৮ দশমিক ১ শতাংশ। কিন্তু অভিবাসনের উচ্চ হার যদি অব্যাহত থাকে ২০৫০ সাল নাগাদ সুইডেনে মুসলিমরা হবে মোট জনসংখ্যার তিরিশ শতাংশ। অর্থাৎ জনসংখ্যার প্রায় এক তৃতীয়াংশ। পিউ রিসার্চ সেন্টার অভিবাসনের বিভিন্ন হার বিবেচনায় নিয়ে ইউরোপে মুসলিম জনসংখ্যা সম্পর্কে তিন ধরণের পূর্বাভাস দিয়েছে। এতে বলা হচ্ছে যদি অভিবাসন যদি এখনই শূণ্যে নামিয়ে আনা হয়, তারপরও ইউরোপের মুসলিম জনসংখ্যা বর্তমানের ৪ দশমিক ৯ শতাংশ থেকে বেড়ে দাঁড়াবে ৭ দশমিক ৪ শতাংশে। আর যদি অভিবাসনের উচ্চ হার অব্যাহত থাকে, তাহলে মুসলিম জনসংখ্যা হবে ১৪ শতাংশের বেশি। পিউ রিসার্চ সেন্টার এই গবেষণাটি চালায় মোট তিরিশটি দেশের ওপর। এর মধ্যে ২৮টি হচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বর্তমান সদস্য রাষ্ট্রগুলি। অন্য দুটি দেশ হচ্ছে নরওয়ে এবং সুইটজারল্যান্ড।
কোন দেশে কত মুসলিম:
২০১৬ সালের তথ্য বিবেচনায় নিলে ইউরোপের এই তিরিশটি দেশের মুসলিম জনসংখ্যা এই মূহুর্তে ২ কোটি ৫৭ লক্ষ। মোট জনসংখ্যার ৪ দশমিক ৯ শতাংশ। এর মধ্যে সংখ্যার হিসেবে এবং জনসংখ্যার অনুপাতে সবচেয়ে বেশি মুসলিম আছে ফ্রান্সে। দেশটিতে বাস করে প্রায় অর্ধ কোটি মুসলিম ( ৪৯ লক্ষ ৫০ হাজার)। ফ্রান্সের মোট জনসংখ্যার অনুপাতে মুসলিমরা হচ্ছে ৮ দশমিক ৮ শতাংশ।ইউরোপের এই তিরিশটি দেশের মধ্যে মুসলিমরা দ্বিতীয় বৃহত্তম সংখ্যায় আছে জার্মানিতে। সেখানে মোট জনসংখ্যার ৬ দশমিক ১ শতাংশ মুসলিম। মোট মুসলিমের সংখ্যা ৫৭ লক্ষ ২০ হাজার। বৃটেনে মোট জনসংখ্যার অনুপাতে মুসলমানদের সংখ্যা জার্মানির তুলনায় বেশি (৬ দশমিক ৩ শতাংশ)। ব্রিটেনে মুসলমানদের সংখ্যা ৪১ লক্ষ ৩০ হাজার।
এছাড়া ইউরোপে উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় এবং হারে মুসলিম আছে নেদারল্যান্ডস, ইটালি, স্পেন এবং সুইডেনে। সামনের দশকগুলোতে ইউরোপের মুসলিম জনসংখ্যা সম্পর্কে পূর্বাভাস দিতে গিয়ে পিউ রিসার্চ সেন্টার তিন ধরণের অভিবাসন পরিস্থিতিকে বিবেচনায় নিয়েছে: একেবারে শূণ্য, মধ্যম এবং উচ্চ হারে অভিবাসন।ইউরোপে যদি অভিবাসন এখনই একেবারে বন্ধ করে দেয়া হয়, তারপরও ২০৫০ সাল নাগাদ ইউরোপে মুসলিম জনসংখ্যা দাঁড়াবে সাড়ে তিন কোটিতে। যা মোট জনসংখ্যার ৭ দশমিক ৪ শতাংশ। যদি মধ্যম হারে অভিবাসন চলতে থাকে, তাহলে ইউরোপে মুসলিমদের সংখ্যা ২০৫০ সাল নাগাদ সাড়ে পাঁচ কোটি ছাড়িয়ে যাবে। এর মধ্যে ব্রিটেনেই মুসলিমদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি হবে, এক কোটি ৩০ লাখ।আর উচ্চ হারে যদি অভিবাসন ঘটে, তাহলে ২০৫০ সালে ইউরোপে মুসলিমদের সংখ্যা হবে সাড়ে সাত কোটি। জার্মানি হবে ইউরোপে সবচেয়ে বেশি মুসলিম জনসংখ্যার দেশ।জার্মানির মোট জনসংখ্যার প্রায় বিশ শতাংশ হবে মুসলিম। তাদের মোট সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় এক কোটি ৭৫ লাখে।সূত্র,বিবিসি

শেয়ার করুন
সর্বশেষ খবর আন্তর্জাতিক
  • বৃটেনে যৌন হয়রানি অব্যাহত
  • কাবুলে তালেবান জঙ্গিদের হামলায় ১৮ সেনা নিহত
  • বৃটেনে তরুণীদের ওপর যৌন হয়রানি করছে দলবদ্ধ একটি চক্র
  • উত্তর কোরিয়ার নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র
  • রাখাইনের রাজধানীতে বোমা বিস্ফোরণ
  • সৌদিআরব সিনেমা, বিনোদনের জন্য এখন শত কোটি ডলার খরছ করছে
  • মিয়ানমার রোহিঙ্গা গণহত্যার প্রমান ধ্বংস করছে
  • নিজ দল থেকে সরিয়ে দেয়া হল নওয়াজ শরীফকে
  • পেরুতে বাস খাদে পড়ে ৪৪ জন নিহত
  • এবার জাকারবার্গকে ছাড়িয়ে প্রিয়া
  • সিরীয় বিমান হামলায় শিশুসহ নিহত ৭৭
  • ইরানি বিমান বিধ্বস্ত : ৬৬ যাত্রীই নিহত
  • ইরানি বিমান বিধ্বস্ত : ৬৬ যাত্রীই নিহত
  • ইরানে যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত
  • মেক্সিকোয় হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে হয়ে শিশুসহ ১৪ জন নিহত
  • রাশিয়ার ব্যাংক থেকে ৬০ লাখ ডলার চুরি করেছে হ্যাকাররা
  • নেপালের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহন করলেন খাদগা প্রসাদ শর্মা অলি
  • দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা
  • দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমার পদত্যাগ
  • পাকিস্তানের কাছে গোপন তথ্য ফাঁস করার অভিযোগে ভারতের এক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আটক
  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।