ঢাকা | বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
বিদ্যালয়ে ভর্তি ফি ২০০০ টাকা! বাংলাদেশের ব্যাংক লুটপাটকারীদের তালিকা ওয়েবসাইটে প্রকাশের দাবি সাংসদের ল্যাব এইডের সিসিইউতে নারায়ণগঞ্জের মেয়র আইভী:বিশ্রামে থাকার পরামর্শ চিকিৎসকদের যুক্তরাজ্যে বেক্সিট প্রস্তাবে দেশটির নিম্নকক্ষে সমর্থন লাভ দুঃখে-ক্ষোভে জ্বলছে বিশ্বনাথ আওয়ামীলীগ:যে কোন সময় গণ-পদত্যাগ! নরসিংদী ওয়েলফেয়ার সোসাইটি ইন স্পেন এর নেতৃবৃন্দ সর্বস্তরেরে প্রবাসীদের ভালোবাসায় সিক্ত হলে বাংলাদেশ অষ্ট্রিয়া ইকোনোমিক চেম্বার অফ বিজনেস এসোসিয়েশন এর সভা অনুষ্টিত ছাতক মিডিয়া সেন্টার পরিদর্শন করলেন সাবেক সাংসদ কলিম উদ্দিন মিলন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশের পাশে থাকবে নয়াদিল্লি: সুষমা কক্সবাজারে বসতঘরে একই পরিবারের ৪ জনের লাশ
বিশ্ব বিচিত্র

গাছ থেকে পাওয়া যাবে আলো

বাংলাপেইজ রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে: ১৭-১২-২০১৭ ইং । ১৮:২৫:২৯

বৃক্ষপ্রেমীদের জন্য সুখবর। আর খুব বেশি দিন নেই, যেদিন টেবিলের বাতি থেকে সড়কবাতি পর্যন্ত সব বাতির জায়গা দখল করে নেবে গাছ। যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) বিজ্ঞানীরা সে আশাই দেখাচ্ছেন। আলো ছড়াতে পারে, এমন উদ্ভিদ উদ্ভাবনের চেষ্টায় সফল হয়েছেন তাঁরা।

জোনাক পোকার সঙ্গে কম-বেশি সবারই পরিচয় রয়েছে। এই পোকার মিটিমিটি আলোর উৎস হলো এর দেহের অক্সিডেটিভ এনজাইম উপাদান লুসিফেরাসি। এমআইটির রাসায়নিক প্রকৌশলের অধ্যাপক মাইকেল স্ট্রানো ও তাঁর সহকর্মীরা এই উপাদানকেই গাছের ভেতর স্থাপন করেছেন। তাঁদের এ গবেষণা নিবন্ধটি আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটি প্রকাশিত ন্যানো লেটার্স সাময়িকী প্রকাশ করেছে।

বিজ্ঞানীরা প্রথমে লুসিফেরাসিসমৃদ্ধ ন্যানো বস্তুকণা তৈরি করেন। এর সঙ্গে যোগ করেন কোএনজাইম এ। উদ্ভিদের সংশ্লেষণে সহায়ক এই কোএনজাইম। এই দুই উপাদানের মিশ্রণে পরীক্ষাধীন গাছকে চুবিয়ে তা উচ্চ চাপে রাখা হয়। এতে উদ্ভিদের শাখা-প্রশাখা ও পাতার বিভিন্ন জায়গায় মিশ্রণের উপাদানগুলো প্রবেশ করে। এভাবে প্রক্রিয়াকরণের পর ওই গাছগুলো থেকে চার ঘণ্টা পর্যন্ত আলো পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

গবেষণা নিবন্ধটির জ্যেষ্ঠ লেখক অধ্যাপক স্ট্রানো জানিয়েছেন, তাঁরা শালুক, লতাপাতার ওপর গবেষণাটি করেছেন। ঘর থেকে সড়ক পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় আলোর ব্যবস্থাপনায় তাঁদের এ গবেষণা কাজে আসবে বলে তাঁরা আশা করছেন। তিনি বলেন, গাছের নিজস্ব শক্তি আছে। তাঁদের গবেষণা আসলে আলো উৎপাদনে উদ্ভিদের ওই শক্তিকেই কাজে লাগানোর কৌশল।

এবারই প্রথম আলো উৎপাদী গাছ তৈরির চেষ্টা হয়নি। এর আগে জিন প্রকৌশলের মাধ্যমে এমন গাছ পাওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। সেসব গবেষণায় সীমিত সাফল্য পাওয়া গেছে।

 

#এস আর/বাংলাপেইজ

শেয়ার করুন
সর্বশেষ খবর বিশ্ব বিচিত্র
  • গাছ থেকে পাওয়া যাবে আলো
  • সমকামী দম্পতি ‌‘ওয়াইফ অ্যান্ড ওয়াইফ’
  • লন্ডনে চিকিৎসা শেষে বুধবার বাংলাদেশে ফিরছেন বেগম খালেদা জিয়া: যুক্তরাজ্য বিএনপি
  • ৩৮ মিলিয়ন ডলারে বিক্রি হলো একটি বাটি
  • স্বামীকে গুলি করে মারার ঘটনায় সাক্ষী টিয়া পাখি
  • ব্রিটেনের প্রথম গর্ভবতী পুরুষ কন্যা সন্তানের জন্ম দিলেন
  • লন্ডনে ‘কার সংস্কৃতির’ প্রতিবাদ জানাতে শতাদিক নারী-পুরুষের নগ্ন সাইকেল রাইড
  • চা বিক্রেতা থেকে মডেল!
  • লোক দেখাতে বিয়ের আসরে ভুয়া বরযাত্রী: পাত্র কারাগারে
  • আকাশ থেকে মাথায় গরু পড়ে গুরুতর আহত-১
  • মৃত -জীবিত মানুষের বাস এক সাথেই!
  • বিয়ে না করে গর্ভ ভাড়া নিয়ে পিতা হলেন বলিউড ছবি নির্মাতা করন জোহর
  • ইন্দোনেশিয়া সফরে যাচ্ছেন সৌদি বাদশাহ: সাথে লিফট-গাড়ি,৬২০ জন সফরসঙ্গী ও ৪৫৯ টন মাল
  • পুলিশের ভুঁড়ি থাকায় ভারতের আদালতে মামলা দায়ের!
  • ভবিষ্যতের যেভাবে চলাচল করবে মানুষ!
  • স্বপ্নে দেখা নাম্বার দিয়ে লটারি পুরস্কার জিতলেন ক্যানাডিয়ান মহিলা
  • বিপদে পড়া মানুষকে উদ্ধার করবে ড্রোন!
  • অপারেশন করে কমানোর জন্য মিশরীয়  নারীকে ভারত আনা হচ্ছে  
  • মেকআপহীন বউকে দেখেই তালাক!
  • ৫০০ কেজি ওজনের আবদেল অতি জীবন কাটে বিছানায়!
  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।