ঢাকা | শনিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সংসদ অধিবেশনের হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে অনুপস্থিত: চিফ হুইপের চিঠি বিশ্বনাথের প্রবীণ মুরব্বী আলহাজ্ব আলতাবুর রহমানের দাফন সম্পন্ন: ইসলামী ছাত্র সংস্থার শোক আমি দেহ চাইনারে-চাই যে একটা মন:ইতালী প্রবাসী আবু সাইদ খানের লেখা গানে কন্ঠ দিলেন মমতাজ জিয়াউর রহমানের শাসন আমল ছিলো বাংলাদেশর স্বর্ণযুগ: আহমদ আলী মুকিব স্পেনে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলার স্টল উদ্বোধন করলেন রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ জিয়াউর রহমান ছিলেন সফল রাষ্ট্রনায়ক ও বিশ্বনেতা : বেলজিয়াম বিএনপি অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত আনতে আর্থিক সহায়তা দেবে ইউরোপিয় ইউনিয়ন ইংলিশ চ্যানেলে ব্রিজ নির্মাণ করে ফ্রান্সকে যুক্ত করার প্রস্তাব: বিদ্রুপের শিকার ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিশ্বনাথে ১০ম টি-২০ ক্রিকেট লীগের উদ্বোধন নারায়ণগঞ্জের সেই অস্ত্রধারী নিয়াজুল লাপাত্তা:থানায় অভিযোগ!
খুলনা

আধামণ আলুতে এক কেজি পিয়া

বাংলাপেইজ রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে: ১৮-১২-২০১৭ ইং । ০৯:৪২:০৮

শীতকালীন রবিশস্য হিসেবে বাজারে আসতে শুরু করেছে নতুন আলু ও পিয়াজ। কিন্তু নিয়ন্ত্রণহীন বাজারে আলু-পিয়াজের দামের পার্থক্য বিস্তর। পিয়াজের দাম যেখানে আকাশছোঁয়া, তখন আলু বিক্রি হচ্ছে পানির দামে। খুলনার হাটবাজারে এখন আধামণ আলুর দাম দিয়ে কিনতে হচ্ছে এক কেজি পিয়াজ। এ অবস্থায় আলু চাষিরা একদিকে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। তেমনি পিয়াজের ঊর্ধ্বমূল্যে মানুষের মধ্যে দারুণ ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, খুলনার নিউমার্কেট, সান্ধ্যবাজার ও শেখপাড়া খুচরা বাজারে প্রতি কেজি পুরাতন দেশি মোটা পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকায়। আর ছোট পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে ১০০ টাকায়। এসব বাজারে কিছু নতুন পিয়াজের (মুড়িকাটা পিয়াজ) আমদানি হলেও চাহিদার তুলনায় তা খুবই কম। পাশাপাশি খুলনার আলু সংরক্ষণাগার কোল্ড স্টোরেজগুলোতে প্রতি মণ পুরাতন আলু বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকায়। এতে প্রতিকেজির দাম আসে মাত্র ৫ টাকা।

খুচরা বাজারে এই আলু বিক্রি হয় ৮ থেকে ১০ টাকায়। আর নতুন আলু বিক্রি হচ্ছে ১২ থেকে ১৫ টাকায়। দৌলতপুর আইস অ্যান্ড কোল্ডস্টোরেজের প্রতিনিধি মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী জানান, এখানকার তিনটি হিমাগারে ৫ হাজার বস্তা আলু মওজুদ আছে। মৌসুমের শুরুতে প্রতি ৯০ কেজির বস্তা বিক্রি হয়েছে ২৫০০ থেকে ২৫৫০ টাকায়। বর্তমানে তা বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৪৫০ টাকায়। বেসরকারি চাকরীজীবী হেমায়েত হোসেন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘বাজারে পণ্যমূল্যের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। পরিকল্পনামাফিক নিয়মিত বাজার দর নিয়ন্ত্রণ করা হলে এই অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি হতো না। ’ তবে জেলা বাজার কর্মকর্তা আ. সালাম তরফদার জানান, উৎপাদন কম হওয়ায় দেশের পিয়াজের বাজার অনেকটা ভারতীয় বাজারের ওপর নির্ভরশীল। গত সপ্তাহে ভারতে ৬০-৬৫ টাকায় পিয়াজ বিক্রি হয়েছে। লাল রঙের এই পিয়াজ তখন খুলনায় বিক্রি হচ্ছে ৭৫ থেকে ৯০ টাকায়। ভারতে পিয়াজের বাজার কমলে তার প্রভাব এখানে পড়বে। আর জানুয়ারির মাঝামাঝি দেশি পিয়াজ বাজারে ঢুকলে দাম অনেক কমে আসবে।


বাংলাপেইজ/ইমরান

শেয়ার করুন
সাম্প্রতিক খবর
সর্বশেষ খবর খুলনা
  • আধামণ আলুতে এক কেজি পিয়া
  • ঋণের কিস্তি দিতে না পারায় কটূক্তি, গৃহবধূর আত্মহত্যা
  • খুলনায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আসামিসহ ২ জন নিহত
  • খুলনায় মুক্তিযোদ্ধা খুন
  • নিজ বন্দুকের গুলিতে পুলিশ সদস্য নিহত
  • মহেশপুরে জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে ২ জঙ্গি নিহত
  • প্রধানমন্ত্রী দুপুরে মাগুরা যাচ্ছেন
  • কুষ্টিয়ায় মুক্তিযোদ্ধা খবির হত্যা : তিনজনের ফাঁসি
  • ‘বিদেশি নারী সাংবাদিককে উত্যক্ত করেছেন হোটেল মালিক’
  • এমপি লিটনের বড় বোনের গাড়িতে হামলা
  • টেকনাফ-মংডু ট্রানজিট শুরু যে কোন মুহূর্তে
  • সাতক্ষীরায় গৃহবধূর আত্মহত্যা
  • ‘এমপির ছেলেকে ৫ লাখ দিতে হবে, নতুবা ব্যবসা বন্ধ’
  • ২১ জেলায় সোমবার থেকে ট্রাক-লরি ধর্মঘটের হুমকি
  • যশোরে ‘ডাকাতদের বন্দুকযুদ্ধ’, লাশ উদ্ধার
  • রাকিব হত্যা মামলা: আসামিদের ডেথ রেফারেন্সের শুনানি শুরু
  • থানায় ঝুলিয়ে পেটানোর অভিযোগে দুই পুলিশকে তলব
  • সীমান্তে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বিএসএফ
  • টাকার জন্য পুলিশের কেমন নির্যাতন!
  • যশোর প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার্থীকে মারধর ছাত্রলীগের
  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।