ঢাকা | মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
ঢাকা হবে সম্পূর্ণ নিরাপদ শহর জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষনায় গোপালগঞ্জে বিক্ষোভ সিরিয়া থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে রাশিয়া নিউ ইয়র্কে হামলা : উদ্বেগে বাংলাদেশি অভিবাসীরা ঘুষ কেলেঙ্কারিতে বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ও সাবেক ডেপুটি-মেয়রের নাম নতুন প্রকল্পে বদলে যাচ্ছে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ব্রিটিশ রাজপ্রাসাদের প্রাচীরে উঠায় এক যুবক গ্রেফতার: শর্তসাপেক্ষে মুক্তি বাংলাদেশের দুই নেত্রী শেখ হাসিনা ও বেগম খালেদা জিয়ার লড়াইয়ের ইতি কাতার-সৌদি আরবে খালেদা জিয়ার সম্পদের খবর সর্ম্পণ মিথ্যা বানোয়াট: মধ্যে প্রাচ্যে বিএনপি আগামীকাল ফ্রান্স ডেমনস্ট্রেশনে  যোগ দিচ্ছে যুক্তরাজ্য বিএনপির  ২ শতাধিক  নেতাকর্মী
ভারত-বাংলা

পানি মাঙ্গা লেকিন ইলেক্ট্রিসিটি মিলা: শেখ হাসিনা

ভারত প্রতিনিধি প্রকাশিত হয়েছে: ১০-০৪-২০১৭ ইং । ১৭:১১:২৩

প্রধানমন্ত্রীর এবারের ভারত সফরে তিস্তা পানি বন্টন চুক্তি যে হবে না তা আগে থেকেই জানা গিয়েছিলো। তবে ধারনা করা হচ্ছিলো, আগামীতে কবে এই চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনা আছে সে সম্পর্কে হয়তো নিশ্চিত হওয়া যাবে। কিন্তু এবারের ভারত সফরে তিস্তা পানি বন্টন চুক্তির আশ্বাস এবং হতাশা ছাড়া আর কিছুই মিলেনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথাতেও যেনো সেই হতাশা ফুটে ওঠলো। সোমবার ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির থিংক ট্যাংক ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সংবর্ধনা দেয়া হয় শেখ হাসিনাকে। সেখানে দেয়া এক বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর হতাশা পরিষ্কার হয়ে ওঠে।

বক্তব্যে একটু মজা করে হিন্দি বাংলা মিশিয়েই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত সবার উদ্দেশে বলেন, ‘তিস্তায় মোদিতে ভরসা পাতা নেহি, দিদিমনি কিয়া কারেগা। নয়া কুছ দেখা দিয়া....পানি মাঙ্গা লেকিন ইলেক্ট্রিসিটি মিলা। কোই বাত নেহি কুছ তো মিলা।’

তবে বক্তব্যের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী ভারতের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আমাদের শত্রু একটিই, তা হচ্ছে দারিদ্র।

উল্লেখ্য, গত ছয় বছর ধরে তিস্তা পানি বন্টন চুক্তি নিয়ে ভারতের কাছ থেকে কেবল আশ্বাসই মিলেছে। কাজের কাজ কিছুই হয়নি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবারের ভারত সফরে চুক্তি করার জন্য একটি নির্দিষ্ট সময় জানার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তা সফল হয়নি।

এর আগে তিস্তার পানি বন্টন চুক্তির বদলে শেখ হাসিনাকে মমতা ব্যানার্জি একটি বিকল্প প্রস্তাব দেন। মমতা ব্যানার্জি বলেন যে, তিস্তায় পানি নেই। তিনি তোর্সা নদী থেকে বাংলাদেশকে পানি দিতে পারেন।

বলা বাহুল্য, তার এই মন্তব্য স্রেফ প্রহসন। কারণ তোর্সা থেকে পানি আনতে হলে, তোর্সার পানি আগে আরেক নদীতে নিতে হবে, সেখান থেকে আনতে হবে বাংলাদেশে। যা এক অবাস্তব ব্যাপার।

তাঁর এই বিকল্প প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য হয়নি ভারতের খোদ কেন্দ্রীয় সরকারের কাছেই। কেন্দ্র একটি দ্বিপাক্ষিক যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করে তিস্তা চুক্তির দ্রুত রূপায়ণে সমন্বয় সাধনের কথা বলেছে।

শেয়ার করুন
সর্বশেষ খবর ভারত-বাংলা
  • ভারতে যাত্রীবোঝাই বিমানে বলিউড অভিনেত্রীর যৌন হেনস্তা
  • সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে সালমানের ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছবি
  • ভারতের রাজধানী দিল্লি মারাত্মক দূষণে বিপর্যস্ত: সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা
  • ঢাকা ছাড়লেন অরুণ জেটলি
  • ‘সিরিয়াল কিলার’ নান্নু ভারতে খুন
  • মাশরাফি ও জয়াকে বর্ষসেরা বাঙালির পুরষ্কার দিলো কলকাতার এবিপি
  • দার্জিলিঙে ভাষার আন্দোলনে উত্তপ্ত পাহাড়
  • ভারতের বাবরি মসজিদ ধ্বংসের মামলা: অভিযুক্ত হলেন বিজেপির তিন শীর্ষ নেতা
  • ধর্ষণের অভিযোগে হিন্দু ধর্মগুরুর পুরুষাঙ্গ কর্তন
  • ‘পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশ সীমান্ত সিল করা হবে’
  • তিস্তার বদলে আবারও তোর্সার কথাই বললেন মমতা
  • ফের ঢাকা আসছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান
  • ‘তিন তালাক নিয়ে সরকার কারও কাছে মাথা নোয়াবে না’
  • কলকাতায় বঙ্গবন্ধুর মুর্তি সরানোর দাবির প্রতিবাদে সরব মুসলিমরাই
  • পানি মাঙ্গা লেকিন ইলেক্ট্রিসিটি মিলা: শেখ হাসিনা
  • আমাকে কেন দেশে ঢুকতে দিচ্ছেন না?
  • প্রণবের সঙ্গে ৭১’র স্মৃতিচারণ, প্রশংসায় সোনিয়া
  • তিস্তায় পানি নেই এমন যুক্তি মমতার, বিকল্প প্রস্তাব
  • ৪৫০ কোটি ডলার ঋণসহায়তা দেবে ভারত
  • বাংলাদেশ-ভারত ২২ চুক্তি সই
  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।